মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব

১। জনাব আব্দুস ছালাম খান ।

 

       ১৯৩৭ সনে বাসাইল উপজেলার ঝনঝনীয়া গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন । পিতাঃ মরহুম রিয়াজ উদ্দি খান। শৈশবে নাগরপুরে লেখা পড়া শুরু। ১৯৫৪ সনে নাগরপুর যদুনাথ উচ্চ বিদ্যালয় হতে ম্যাট্রিকুলেশন ,স’দত কলেজ থেকে এইচ,এ,সসি পাশ করার পর ভর্তি হন চট্ট্রগ্রাম কলেজে। পরবর্তীতে জগন্নাথ কলেজ হতে বি.কম পাশ করেন। সর্বশেষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে এম.এ ডিগ্রী লাভ করেই কর্মজীবনে প্রবেশ করেন। ছাত্রাবস্থায় তার রাজনৈতিক জীবন শুরু। শ্রমিক আন্দোলনে তার অবিস্বরণীয় অবদান রয়েছে। বাংলাদেশে গত ৪৫ বছরের মধ্যে শ্রমিক আন্দোলনে তিনি ছিলেন প্রতিশুতিশীল নেতা। তিনি বর্তমানে জাতীয় শ্রমীক লীগের সভাপতি, বাংলাদেশ কনফেডারেশন অব ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতি।এলাকার উন্নয়নের  জন্য তার অবদান প্রশংসার দাবিদার। শোষিত,বঞ্চিত, নির্যাতিত মানুষের কল্যাণে তার চলার গতি সত্যিই প্রশংশনীয়।

 

২। এডভোকেট আব্দুল বাকী মিয়া ।

 

     এডভোকেট আব্দুল বাকী মিয়া, পিতা-মরহুম ওয়াহেদ আলী মিয়া, মাতা মোছাঃ আফাতুন্নেছা। জন্ম- ১৯৫২ সন ৫ জানুয়ারী বাসাইলের জশিহাটী গ্রামে। তিনি ১৯৬৬ সনে এইচ. এম. ইনষ্টিটিউশন করটিয়া হতে এস. এস. সি. ১৯৬৮ সনে সা’দত কলেজ হতে এইচ. এস. সি ও ১৯৭০ সনে একই কলেজ হতে বি. এ. পাশ করেন। ১৯৭৭ সনে ঢাকা সিটি ‘ল’ কলেজ হতে এল. এল. বি সমাপ্ত করেন। তৎপর ১৯৭৮ সনে আইনজীবি হিসেবে সনদ প্রাপ্ত হন। তিনি ছাত্রাবস্থা থেকেই রাজনীতির সঙ্গে সক্রিয় ছিলেন। ১৯৬৯ সনে ছাত্র ইউনিয়নের প্রার্থী হিসাবে সা’দত কলেজ ছাত্র সংসদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেন। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর জাতীয় সমাজতান্তিক দলে যোগদান করেন। বর্তমানে তিনি টাঙ্গাইল জেলা বি. এন. পি ও বাসাইল থানা বি. এন. পি’র সদস্য। তিনি ১৯৮০ সনে টাঙ্গাইল জেলা এডভোকেট বার সমিতির সহ সাধারণ সম্পাদক, ১৯৯১ সনে সাধারণ সম্পাদক, ১৯৯৭ সনে সহ- সভাপতি এবং ১৯৯৯-২০০০ সনে সভাপতি পদে নির্বাচিত হন। তিনি রেডক্রিসেন্ট ও ডায়াবেটিক এসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য ও জেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্য। তিনি ৬ষ্ঠ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাসাইল- সখীপুর আসন থেকে বি. এন. পি’র মনোনয়ন প্রার্থী ছিলেন।

 

৩। খিজির হায়াত খান ।

 

      খিজির হায়াত খান টাঙ্গাইল জেলার বাসাইলে ১৯৬৭ সনে জন্মগ্রহণ করেন। পৈতৃক নিবাস বাসাইল উপজেলার ফুলকী ইউনিয়নের ঝনঝনিয়া গ্রাম। পিতাঃ শহীদ রওশন আলী খান, মাতা মরহুমা হাজেরা খান। পৈতৃক চাকুরীর সুবাদে শৈশবে চিটাগাং এ লেখাপড়া শুরু করেন। ১৯৮৩ সনে স্বামী বিবেকানন্দ উচ্চ বিদ্যালয় হতে এস. এস. সি. পাশ করে সা’দত কলেজ করটিয়া হতে ইন্টারমিডিয়েট ও ডিগ্রী পাশ করেন। স্বল্পকাল ব্যবসা বাণিজ্যে অতিবাহিত হবার পর নিউইয়র্কে গমন করেন। পিতৃ নামে প্রতিষ্ঠিত শহীদ রওশন আলী খান মহাবিদ্যালয়কে আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলাই তাঁর সংগ্রামের মূল লক্ষ্য।

 

৪। খন্দকার জাহাঙ্গীরুল ইসলাম ।

 

        খন্দকার জাহাঙ্গীরুল ইসলাম, জন্ম  ১৯৫২ সনের ৩০ জুন বাসাইল উপজেলার জশিহাটী গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। পিতা খন্দকার ওয়াজেদ আলী ছিলেন আদর্শবান স্কুল শিক্ষক, মাতা মিসেস সালমা খানম। শৈশবে জশিহাটী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে বাল্য শিক্ষা লাভের পর গোপাল দীঘি কে. পি. ইউনিয়ন হাইস্কুল (কালিহাতী) হতে ১৯৬৭ সনে এস. এস. সি. পাশ করেন। পরবর্তীতে ১৯৬৯ সনে সা’দত কলেজ করটিয়া হতে এইচ. এস. সি. পাশ করে ভর্তি হন একই কলেজে, বি. এস. সিতে। ৭১-এর স্বাধীনতা যুদ্ধে স্বেচ্ছা সেবক বাহিনীর সদস্য হিসেবে সক্রিয় অংশ গ্রহণ করেন। পরবর্তীতে ১৯৭২ সনে সা’দত কলেজ করটিয়া হতে বি. এস. সি. পাশ করেন এবং ঢাকা ‘ল’ কলেজ হতে এল. এল. বি. ডিগ্রী লাভ করেন। বি, এস. সি. পাশের পর ১৯৭৫ সনে টাঙ্গাইল কালেক্টরেট অফিস সহকারী হিসাবে কর্ম জীবন শুরু করেন। এলাকার উন্নয়নে ও সমাজ সেবায় রয়েছে তার বিশেষ অবদান।

 

৪। খন্দকার মোঃ আইয়ুব ।

   

      খন্দকার মোঃ আইয়ুব, পিতা মরহুম খন্দকার মোতাহের আলী ও মাতা আমেনা খাতুন। জন্ম ১৯৫২ সনের ৩০ ডিসেম্বর বাসাইল উপজেলার জশিহাটী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। জশিহাটী হতে প্রাথমিক শিক্ষা লাভ করার পর ১৯৬৮ সনে কোয়েদী সোনাউল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয় হতে এস.এস.সি পাশ করেন। ১৯৬৯ সনে পুলিশ একাডেমি সারদা হতে ৬ মাস প্রশিক্ষণ লাভ করেন এবং ১৯৭০ সনে বরিশাল সদর উপজেলায় পুলিশ কনস্টেবল হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৭১ এর মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে স্বেচ্ছা সেবক হিসেবে স্বল্পকালীন দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯১ সন হতে ২০০১ সন পর্যন্ত একই পদে শরিয়তপুর জেলার বিভিন্ন ইউনিটে  দায়িত্ব পালন ও ২০০৩ সনের জুলাই মাসে অবসর গ্রহণ  করেন।

 

৫। খন্দকার রফিকুল ইসলাম ।

 

       খন্দকার রফিকুল ইসলাম টাঙ্গাইল জেলাধীন বাসাইল উপজেলার ফুলকী ইউনিয়নের জশহাটী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৫৬ সনের ৩১ জানুয়ারী জন্মগ্রহণ করেন। পিতা খন্দকার ওয়াজেদ আলী এবং মাতা মিসেস সালমা খানম। পিতা- মাতার ৮ ছেলে ও ১ মেয়ের মধ্যে খন্দকার রফিকুল ইসলাম কনিষ্ঠ সন্তান। ছোটবেলা থেকেই মেধাবী, অধ্যবসায়ী, বিনয়ী, নম্র স্বভাবের খন্দকার রফিকুল ইসলাম জশিহাটী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করেন। এস.এস.সি পরীক্ষার জন্য প্রস্ত্ততি গ্রহণকালে ১৯৭১ সনে শুরু হয় স্বাধীনতা যুদ্ধ। তিনি স্বাধীনতাযুদ্ধে  সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। ১৯৭১ সনে এস.এস.সি. ১৯৭৩ সনে এইচ.এস.সি এবং ১৯৭৬ সনে সা’দত কলেজ থেকে অর্থনীতিতে অনার্স সহ বি.এস.এস পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হয়ে ১৯৭৮ সনে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড নামে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয থেকে অর্থনীতিতে মাস্টার্স এম.এস.এস ডিগ্রী লাভ করে। ১৯৮৫ সনে বি.সি.এস পরীক্ষায় পাশ করে বি.সি.এস (প্রশাসন) ক্যাডারে যোগদান করেন। খন্দকার রফিকুল ইসলাম বাসাইল উপজেলার জশিহাটী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং জশিহাটী খন্দকার ওয়াজেদ আলী মাদ্রাসা ও এতিমখানার প্রতিষ্ঠাতা। এছাড়াও তিনি ঢাকা জেলার ডেমরা থানার সুন্না টেংরা ছালামিয়া দাখিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য।

 

৬। বেল্লাল হোসেন ভূইয়া ।

 

        বেল্লাল হোসেন ভূইয়া, জন্ম- ১৯৫০ সনে বাসাইল উপজেলার ফুলকী ইউনিয়নের ফুলকী গ্রামে। পিতা- মরহুম ফয়েজ উদ্দিন মিয়া। যশিহাটী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে প্রাথমিক শিক্ষালাভের পর ১৯৬৫ সনে এইচ,এম, ইনস্টিটিউশন হতে এইচ,এস,সি এবং ১৯৭০ সনে বি,এস,সি, পাশ করেন। ১৯৭৪ সনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে গণিত শাস্ত্রে এম,এস,সি লাভের পর ময়থা জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক হিসাবে দায়িত্ব পালন শেষে ১৯৭৮ সনে জনতা ব্যাংকে অফিসার হিসাবে যোগদান করেন। একজন আদর্শ ব্যাংকার হিসেবে তিনি যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছেন।

 

৭। মাহবুব সাদিক ।

 

      মাহবুব সাদিক, জন্ম-২৫ অক্টোবর,১৯৪৭ সন, বাসাইল উপজেলার আইসড়া  গ্রামে। পিতা-মোয়াজ্জেম হোসেন খান। ১৯৬২ সনে টাংগাইল বিন্দুবাসিনি হাই স্কুল থেকে এস,এস,সি, ১৯৬৪ সনে করটিয়া সা’দত কলেজ থেকে এইচ,এস,সি, এবং ১৯৬৮-৬৯ সনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়  থেকে বাংলায় সম্মান ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। বুদ্ধদেব বসুর কবিতাঃ বিষয় ও প্রকরণ এর উপর গবেষনা করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯০ সনে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন। সরকারী কলেজে অধ্যাপনা দিয়ে কর্মজীবনের শুরু। কবি ও গল্পকার হিসাবে খ্যাতি অর্জন করেছেন। স্বপ্ন চৈতন্যের ডালপালা, সুন্দর তোমার নির্জনে, জোৎস্নাবোনা রাত প্রভৃতি তাঁর অন্যতম কয়েকটি প্রকাশিত গ্রন্থ। খালেদ মোশারফ স্মৃতি পদক ও নাজ স্মৃতি স্বর্ণপদকে ভুষিত হন।

 

৮।মাহবুব হাসান ।

 

       মাহবুব হাসান, জন্ম- ২৮ এপ্রিল ১৯৫৪ সন আইসড়া গ্রামে। পিতা- মোয়াজ্জেম হোসেন খান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় সম্মান এবং স্নাতকোত্তর পাশ করেন। সাংবাদিকতায় পেশায় কর্মজীবনের শুরু। দৈনিক জনতা পত্রিকার সহকারী সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তন্দ্রার কোলে হরিণ, তোমার প্রতীক, নিঃস্বর্গের নুন প্রভৃতি তার প্রকাশিত অন্যতম কয়েকটি বিখ্যাত গ্রন্থ। ১৯৮৪ সনে আসাফ উদদৌলা রেজা স্মৃতি সাহিত্য পুরস্কার প্রাপ্ত হন।

 

৯। মেজর আবু মুরাদ মোহাম্মদ দাউদ খান ।

 

      মেজর আবু মুরাদ মোহাম্মদ দাউদ খান, পিতা -মরহুম আইয়ুব খান, জন্ম  ১৭ ফেব্রুয়ারি- ১৯২৮ সনে বাসাইলের ফুলকি ইউনিয়নের ঝনঝনিয়া গ্রামে। তিনি কোলকাতা থেকে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা লাভ করেন। কিন্তু ঐ সময়ে ২য় বিশ্বযুদ্ধের কারণে টাঙ্গাইলে চলে এসে শিবনাথ উচ্চ বিদ্যালয় হতে ম্যাট্রিক ও সা’দত কলেজ হতে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করেন। তিনি ৭ নভেম্বর ১৯৪৯ সনে পাকিস্তান আর্মি বিভাগে বেলুজ রেজিমেন্টে ক্যাডেট কোর হিসাবে যোগ দেন। তৎপর ১৫ জুন ১৯৫০ সনে সেকেন্ড লেফটেনেন্ট হিসাবে পদোন্নতি লাভ করেন। পর্যায়ক্রমে তিনি মেজর হিসাবে উন্নীত হন। ২৭ আগষ্ট ১৯৭৫ সনে অবসর গ্রহণ করেন। চাকুরী জীবনে তিনি সরকার কর্তৃক বিভিন্ন সম্মানে ভূষিত হয়েছেন। উল্লেখযোগ্য পদক হচ্ছে রি-পাবলিক, তানজা-ই-জান, ভিক্টোরিয়া ও কন্টিভিশন।

 

১০। মোঃ আবুল কাশেম ।

 

       মোঃ আবুল কাশেম, জন্ম- ১ জানুয়ারী, ১৯৬৫ সন ফুলকী ইউনিয়নের করটিয়াপাড়া গ্রামে। পিতা- মোঃ আবুল হোসেন মাষ্টার। ময়থা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক শিক্ষা লাভের পর ১৯৭৯ সনে টাংগাইল বিন্দুবাসিনি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস, এস, সি, ১৯৮২, ১৯৮৯ এবং ১৯৯২ সনে করটিয়া সা’দত কলেজ থেকে যথাক্রমে এইচ, এস, সি,  বি, এ এবং এম, এ পাশ করেন। একজন ফুটবল খেলোয়ার হিসাবে তাঁর খ্যাতি রয়েছে। প্রথম জীবনে ঢাকা ইষ্টার্ন ক্লাব, পিডব্লিউডি এবং ওয়ান্ডারার্স ক্লাবে নিয়মিত ফুটবল খেলতেন। টাংগাইল জেলা দলেও ফুটবল খেলেছেন। টাংগাইল জেলা সমবায় ফেডারেশনে বর্তমান সচিব, সমবায় ব্যাংক টাংগাইলের নির্বাচিত পরিচালক, টাংগাইল জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহকারী সম্পাদক এবং বাসাইল বিআরডিবির চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

 

 

১১। শহীদ রওশন আলী খান ।

 

      শহীদ রওশন আলী খান বাসাইল উপজেলার ঝনঝনিয়া গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা আব্দুল গণি খান। শৈশবে কাউলজানী প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে প্রাথমিক শিক্ষা লাভের পর এলাসিন তারক যোগেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় হতে ম্যাট্রিকুলেশন পাশ করেন। সা’দত কলেজ করটিয়া হতে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করার পর পাকিস্তান রেলওয়ে কর্মকর্তা হিসাবে চাকুরীতে যোগদান করেন। ২৫ জুলাই ১৯৪১ সনে কুমুল্লি গ্রামের বিশিষ্ট পোষ্ট মাষ্টার আব্দুল বাসেদ সাহেবের কন্যা মোসাম্মৎ হাজেরা খানমের সঙ্গে শুভ পরিণয় সুত্রে আবদ্ধ হন। সাহিত্য চর্চায় ছিলো বিশেষ অবদান। প্রকাশিত গল্প. উপন্যাস রয়েছে বেশকিছু। ১৯৭১ সনের ৩১ মে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে  হানাদার বাহিনী কর্তৃক নির্মমভাবে নিহত হন।

 

১২। হামিদ রেজা খান (আরজু) ।

 

       হামিদ রেজা খান (আরজু) ১৯৫০ সনের ১লা নভেম্বর টাঙ্গাইল জেলার বাসাইল উপজেলার ফুলকি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা শহীদ রওশন আলী খান। শৈশবে পৈতৃক চাকুরীর সুবাদে চিটাগাং লেখাপড়া শুরু করেন। ১৯৫৬ সনে চিটাগাং গভর্নমেন্ট কলেজিয়েট স্কুল থেকে এস. এস. সি. ও চিটাগাং গভর্নমেন্ট কলেজ হতে এইচ. এস. সি. পাশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে সম্মান সহ এম. এ. ডিগ্রী লাভ করেন। বিশিষ্ট ফার্মাসিস্ট হিসেবে ১৯৭৩ সনে আমেরিকার নিউইয়র্কে গমন করেন। ১৯৯৮ সনের ৬ মার্চ পিতার গৌরবোজ্জল স্মৃতিকে ধরে রাখতে এলাকায় শিক্ষা বিস্তার কল্পে গড়ে তুলেন শহীদ রওশন আলী খান মহা বিদ্যালয়।

 

 

1. Mr. Abdus Salam Khan.


       Basaila was born in 1937 in the village of the upazila jhanajhaniya. Riaz Uddin Khan, the late Father. Nagarapure childhood to read and write. In 1954 Nagorpur jadunath high school matriculation, college sadata H, A, was admitted to Chittagong College after passing sasi. BCom passed the Jagannath College. The MA degree from the university started working. Student started his political life. His contribution to the labor movement has abisbaraniya. The labor movement in the last 45 years, he was the leader of pratisutisila. He is currently president of the National League for labor unions, the Confederation of Trade Unions sabhapatielakara development of Bangladesh for his contribution deserves praise. Exploited, deprived, abused the welfare of its speed is really prasansaniya.


II. Advocate Mian Abdul Baki.


     Advocate Mian Abdul Baki, Waheed Ali Miah late father, mother Mosammat aphatunnecha. Janma 195 Year 5 January basaila jasihati village. H in 1966. M. Come to Karatia Institution. come. C. In 1968, H. Saadat College. come. B and C in 1970 from the same college. Information. Passed. In 1977, Dhaka City Law College came to be. L. B completed. In 1978, he was keen to obtain certification as a lawyer. He was active in politics since his student life. Saadat College Student Union as a candidate in 1969, took part in parliamentary elections. Samajatantika joined the national team after the country became independent. B. He is currently in Tangail district. N. P and B basaila police station. N. Pira member. In 1980, he co-Tangail District Bar Association Advocate General Secretary, General Secretary in 1991, co-president in 1997 and was elected president in 19992000. He is a life member of the Red Crescent and the Diabetes Association and a member of the District Arts Academy. The 6th parliamentary elections sakhipura seat basaila B. N. Pira candidates were nominated.


3. Khizr Hayat Khan.


      Khizr Hayat Khan, was born in 1967 in the district of Tangail basaile. Phulaki Union jhanajhaniya basaila ancestral home village of the upazila. Father Raushan Shahid Ali Khan, deceased mother Hagar Khan. Childhood through ancestral employment began studying at Chittagong. In 1983, Swami Vivekananda S. High School. come. C. Saadat passed the intermediate and degree colleges to be passed Karatia. After the short-lived business went to New York. Raushan Ali Khan, father of Shaheed College was established as an ideal educational institutions build the main goal of his struggles.

 

4. Dr jahangirula Islam.


        Dr jahangirula Islam, was born on June 30, basaila under Act 195 jasihati respectable family in the village. His father was a minister, Dr Ali ideal school teacher, mother Salma Khanam. Jasihati early childhood education in public primary schools after Gopal K. lake. P. Union High School (Kalihati) in 1967 from the US. come. C. Passed. Later, in 1969, to be Karatia H. Saadat College. come. C. College was admitted to the same side, B. come. C. As a member of the War of Independence, Voluntary worker 71 active forces took part. In the 197 B of Karatia Saadat College. come. C. Side and Dhaka Law College came to be. L. B. Degree. B, S. C. After passing in 1975, began his career as an assistant in Tangail Collectorate office. His special contribution to the development of the area and the social services.


4. Dr Mohammad Ayub.

   

      Dr Mohammad Ayub Khan, the father and mother of the late Dr Amena Khatun Motaher Ali. Basaila under Act 195 of 30 December jasihati a respectable Muslim family in a village. After receiving his early education from jasihati koyedi sonaullaha High School in 1968, passed the SSC. Sarda Police Academy in 1969 and received 6 months of training, and in 1970 became a police constable in Barisal Sadar upazila. Short-term war of liberation in 1971, served as a voluntary worker. 001 from the year 1991, the same year as the responsibilities of Shariatpur district unit and 003 BS retired in July.


5. Khandaker Rafiqul Islam.


       Khandaker Rafiqul Islam of Tangail district basaila phulaki Union on 31 January 1956. jasahati village was born in a respectable Muslim family. Dr Khandaker Ali's father and mother Salma Khanam. Mother, son and 1 daughter pita Khandaker Rafiqul Islam, the youngest of 8 children. From an early age talented, diligent, modest, humble nature Khandaker Rafiqul Islam jasihati government primary school at the end of primary education. SSC exam preparations for the war of independence began receiving in 1971. He took active part in independence. SSC in 1971 HSC in 1973, and in 1976, Saadat College with honors in Economics from the BSS examination passed with distinction in Economics from the University of Dhaka, known as the Oxford of the East in 1978 and a master's degree MSS. In 1985 passed the exam BCS BCS (Administration) Cadre joined. Khandaker Rafiqul Islam jasihati basaila at lower secondary school and Dr Khandaker Ali Madrasa and Orphanage founder jasihati. He also Demra thana of Dhaka district, a founding member of Sunnah tengra chalamiya Dakhil Madrasa.


6. Bellal Hossain Bhuiyan.


        Bellal Hossain Bhuiyan, janma basaila In 1950, the village of the upazila phulaki phulaki Union. Late pita phayaব্যবসার

 

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter